নরওয়ের দিনগুলো

ম্যান্ডাল , নরওয়ে।

অগাস্ট ২, ২০১০ সাল , নরওয়েতে প্রথম স্থায়ীভাবে আসি, এর আগেও ২০০৮ থেকে ২০১০ সালের ভেতর প্রায় ৬ বার লন্ডন থেকে নরওয়েজিয়ান গার্ল ফ্রেন্ডের সাথে নরওয়েতে এসেছি, তবে আগের সব আসাটা শুধু মাত্র বেড়ানো জন্যই ছিল। তবে বিয়ে করবার পর ২০১০ সালে স্থায়ীভাবে নরওয়েতে আসা। যাই হোক, বসবাসের জন্য নরওয়েতে আপনি যেভাবেই আসেন না কেন আসার প্রথম সপ্তাহের মধ্যেই স্থানীয় পুলিশ স্টেশনে গিয়ে নিজেকে রেজিস্ট্রি করতে হয়। ২০১০ সালের ৫ আগস্ট সকাল ৯ টার দিকে যখন পুলিশ স্টেশনের ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্টের হল কক্ষে অপেক্ষমান ছিলাম, আমার ঠিক উল্টা দিকে সবুজ পাসপোর্ট হাতে একজন সাদা শার্ট, জিনসের পেন্ট পরা সুদর্শন ছেলে বসেছিল। দেখতে সাউথ এশিয়ান মনে হলেও ছেলেটা পাকিস্তানী না বাংলাদেশী তা বুঝতে একটু কষ্ট হচ্ছিলো। আমার ভালো করে জানাই আছে যে ইন্ডিয়ান পাসপোর্টের রং নীল তাই নিশ্চিত ছিলাম ছেলেটা হয় পাকিস্তানী নয়তোবা বাংলাদেশী। নিজে নতুন এসেছি, ওই ছেলেটাকে দেখেও মনে হচ্ছে একেবারে নতুন তাই বাংলাদেশী হলে একজন বন্ধু পাওয়া গেলো এই ভাবনায় কেমন জানি ভালো একটা অনুভূতি আসছিলো। যাই হোক, আমার ইতস্ততা দেখে বৌ বললো কি হৈছে , বললাম সামনের যে ছেলেটা বসে আছে আমার মনে হয় বাংলাদেশী, ও বললো তো যাও কথা বোলো ওর সাথে। আমার কেমন জানি লজ্জা লাগছিলো এই ভেবে যে আমার ধারণা যদি ভুল হয় আর ছেলেটা যদি পাকিস্তানী হয়ে থাকে তবে অযথা নিরাশ হতে হবে। যাই হোক কথা বলে দেখা গেলো উনিও বাংলাদেশী।
কৌশিক মজুমদার, ঠিক আমার বয়সী, ওনার বাবাও শিক্ষক, আমার বাবাও শিক্ষক ছিলেন, এবং দেশে থাকতে আমার ঠিক একই ব্যাচে লেখা পড়া করেছি। উনি চিটাগংয়ের ছেলে, দেশে ইউনিভার্সিটি শেষ করে নরওয়ের আগডার ইউনিভার্সিটিতে পড়তে আসছেন। সেই থেকে পরিচয়, সেই থেকে বন্ধুত্ব। ২০১০- ২০১৩ নরওয়ের ক্রিস্টিয়ানস্যান্ড শহরে কৌশিক ভাই, হাবিব ভাই, রহিম ভাই, এনাম ভাই আমি সবাই মিলে আমরা অনেক সুন্দর সময় কাটিয়েছি। বাংলাদেশ থেকে মুটামুটি ভালোভাবে পড়ালেখা করা ছেলেমেয়েরা নিজেদের জীবন গুছানোর ব্যাপারে খুবই পারদর্শী , আর কৌশিক ভাইতো এক কাটি উপরে। তাই নরওয়ে থেকে জায়গা পরিবর্তন করলেও ডেনমার্কে গিয়ে জীবন সাজিয়ে নিতে ওনার তেমন একটা বেগ পেতে হয়নি।
বর্তমানে কৌশিক ভাই ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনহাগেনের বাসিন্দা , বৌ বাচ্চা নিয়ে সুখেই আছেন, ভালোই আছেন। মাঝে মাঝে কথা হয়। পুরোনো দিনগুলোর স্মৃতি রোমন্থন করি।

দেশ বিদেশে বন্ধু বান্ধবদের যে যেখানেই থাকুক না কেন ভালো থাকুক এ কামনায় করি।

2,526 total views, 2 views today

প্রকাশিত লেখা, মন্তব্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর। পোষ্ট লেখক অথবা মন্তব্যকারীর অনুমতি না নিয়ে পোস্টের অথবা মন্তব্যের আংশিক বা পুরোটা কোন মিডিয়ায় পুনঃপ্রকাশ করা যাবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *