চাকরির স্থায়িত্ব এবং আপনার ব্যাক-আপ প্ল্যান।

আমি এদেশে মোটামুটি প্রতিটি বড়ো দলের ক্ষমতা পরিবর্তন বা অর্থনৈতিক মন্দার সময় দেখেছি। এই জিনিসগুলির পরিবর্তনে প্রতিবারেই দেখেছি কোনো না কোনো চাকরি বা পদ হারাচ্ছে এবং সেটি ছোটো বড়ো যে কোনো পেশায় হতে পারে। হাঁ, নতুন কিছু তৈরিও হচ্ছে, তবে সে বিষয় নিয়ে আমার কথা নয়।
এই বিষয়ে আমাদের সতর্ক থাকা উচিত। বর্তমানে তেমনি একটি সময় চলছে। ইতিমধ্যে আমার পরিচিত ২/৩ জন তাদের চাকরি হারিয়েছেন এবং আপনারা জানেন শিক্ষকসহ আরো কিছু পেশার লোকের চাকরি হারাবে। যাহোক, এটি হয়তো কম বেশি সব সময় থাকবে।
এখন আমার কথা হলো, আপনার পেশা বা চাকরি যদি এমন হয়ে থাকে যে ওই সমস্ত পরিবর্তনে আপনার চাকরির স্থায়িত্বের কোনো নড়চড় হবে না তাহলে আপনি নিচিন্তে থাকতে পারেন। তবে আপনার পেশা বা চাকরিটির স্থায়ীত্ব যদি Vulnerable হয়ে থাকে তাহলে অবশই আপনাকে একটি ব্যাক আপ প্ল্যান অর্থাৎ প্ল্যান B সব সময় রেডি রাখতে হবে, তাহলে হটাৎ করে ঝামেলায় পড়তে হবে না এবং নিজের ওর পরিবারের উপর চাপ কম পড়বে।
ব্যাক আপ প্ল্যান এক এক জনের এক এক রকম হতে পারে। যেমন ধরুন আপনি কোনো PT/Casual /On Call জাতীয় কোনো কাজ আপনার FT কাজের পাশে রাখতে পারেন, হয়তোবা মাসে একদিন, অথবা মাসে ২/৩দিন Uber চালান, অথবা মাসে ২/১দিন কোনো ডেলিভারির কাজ করুন, বা প্রাইভেট কোনো প্র্যাক্টিস করুন ইত্যাদি। আর চাকরি আজ খোঁজা লাগুক বা কালকে লাগুক, আপনার রেসুমি Always uptodate রাখবেন। মনে রাখবেন, এই রেসুমি লেখা বা চাকরি খোঁজা বেকার অবস্থায় করতে খুবই কষ্ট হয় এবং ঠিকমতো করা যায় না। কারণ এই সময় আগামী মাসেগুলির বাড়ি ভাড়া বা মর্টগেজের চিন্তা করবো নাকি রেসুমি লিখবো আর চাকরি খুঁজবো।
আমি বেশ কয়েকবছর আগে একজন highly depression এর ক্লায়েন্ট পেয়েছিলাম (আমাদের দক্ষিণ এসিও) যিনি একসময় Nortel Communicationএ বোরো চাকরি করতেন। পরে Nortel এর bankruptcy হলে উনার চাকরি হারান, তার পর সংসার ভাঙে এবং অবশেষে severe depression and suicidal risk. উনার বিন্দুমাত্র ব্যাক আপ প্ল্যান ছিল না এবং উনি ৮/১০ জন মানুষের মতো নিজের জবের বাইরে অন্য কোনো চিন্তা করেন নি। সব কিছু মিলিয়ে ভালো ভাবে চলতে থাকলে হটাৎ করে এমনি অবস্থা হলে কিন্তু অনেকেরই কিংকর্তব্যবিমূড় অবস্থা হওয়ারই কথা।
যাহোক আবারো বলছি, কবে চাকরি যাবে বা কাজ কমবে তখন রেসুমে লিখবো বা কাজ খুঁজবো সেই আশায় না থেকে আপনার চাকরি থাকা অবস্থায়ই চারিদিকে খোঁজ খবর রাখুন এবং সম্ভাব্য সংকটের মোকাবেলায় প্রস্তুত থাকুন। By the way, এগুলি বললাম স্রেফ সতর্কতার জন্য, তাই বিষয়টি নিয়ে প্যানিক হওয়ার কোনো দরকার নেই।
আমি আমার নিজের এবং আরো কিছু মানুষের রূঢ় কিছু অভিজ্ঞতার আলোকে বললাম। এগুলি যদি কারো ক্ষেত্রে প্রযোজ্য না হয় তাহলে বিষয়টি ignore করতে পারেন।
ধন্যবাদ।

2,501 total views, 5 views today

প্রকাশিত লেখা, মন্তব্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর। পোষ্ট লেখক অথবা মন্তব্যকারীর অনুমতি না নিয়ে পোস্টের অথবা মন্তব্যের আংশিক বা পুরোটা কোন মিডিয়ায় পুনঃপ্রকাশ করা যাবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *