রেজুমে বাছাই

বাংলাদেশি তিনজনের রেজুমে পেলাম। ভালো লাগা এবং শংকা দু’টোই ছিল। হায়ারিং ম্যানেজার হিসেবে এইচআর [মানবসম্পদ বিভাগ] থেকে আমার কাছে চাকুরির আবেদনপত্রগুলো দেয়া হলো। আবেদনপত্রগুলো হাতে পেয়েই প্রথমে মনে হলো, দেখিতো বাংলাদেশি কেউ আবেদন করেছেন কি না। এইচআর থেকে তারিখ অনুযায়ি আবেদনপত্রগুলো দেয়া হয়েছিল। সবকিছু এলোমেলো করে ফেললাম। প্রয়োজন হলে তারিখ অনুযায়ি আবার সাজানো যাবে। আগে দেখে নেই বাংলাদেশি কাউকে পাই কি না। পেয়ে গেলাম তিনজন। ভালো লাগলো। কেন ভালো লাগলো বলার মনে হয় প্রয়োজন নেই।  

শংকা কেন? দু’টি কারণে। প্রথমতঃ রেজুমে বাছাই করার জন্য কিছু বিষয়কে বিবেচনায় নিয়ে পয়েন্ট নির্ধারণ করেছি। যদি বাংলাদেশি তিনজন সেই পয়েন্ট বিবেচনায় বাছাই প্রক্রিয়ায় বাদ পড়ে যায়। দ্বিতীয়তঃ বাংলাদেশি আবেদনকারী বাদ পড়ার পরও তাদেরকে ইন্টারভিউ-এর জন্য আমন্ত্রণ জানানো কি ঠিক হবে? এরকম স্বদেশপ্রীতি করা কি ঠিক?

তিনজনের রেজুমে দেখলাম। সব শংকা দূর হলো। মনের মধ্যে কোন শংকা থাকলো না। আমাকে কোন স্বদেশপ্রীতি করতে হলো না। তাঁরা তাঁদের নিজ যোগ্যতায় ইন্টারভিউ-এর জন্য আমন্ত্রণ পেয়েছেন। আমার বিশ্বাস তাঁদের কমপক্ষে একজন হলেও চাকুরি পাবেন [একাধিক লোক নেয়া হবে]।

লেখাটির মূল উদ্দেশ্য রেজুমে বাছাই প্রক্রিয়া নিয়ে কথা বলা। আমাদের এখানে যেভাবে বাছাই প্রক্রিয়াটি হলো তা যে সব প্রতিষ্ঠানে এক রকম হবে তা কিন্তু নয়। অনেক প্রতিষ্ঠান রেজুমে স্ক্রিনিং সফটওয়ের ব্যবহার করে রেজুমে বাছাই করে যেখানে মুলতঃ কী ওয়ার্ড, কী ফ্রেইজ ইত্যাদি বিবেচনায় নেয়া হয়। আমরা এখানে প্রতিটি রেজুমে দেখেছি। নির্ধারিত বিষয়য়ে আবেদনকারীর অভিজ্ঞতা বিবেচনা করে সেই বিষয়ে পয়েন্ট দিয়েছি। যেমন ধরুন- স্টুডেন্টদের সাথে কাজ করার পূর্ব অভিজ্ঞতা, ভলিন্টারি কাজের সাথে সম্পৃক্ততা, প্রশিক্ষণ/ কর্মশালা আয়োজন ও পরিচালনার অভিজ্ঞতা ইত্যাদি। বিভিন্ন বিষয়কে বিবেচনায় নিয়ে পয়েন্ট নির্ধারণ করার ক্ষেত্রে অবশ্যই আমরা জব পোস্টিংকে মাথায় রেখেছি। আর জব পোস্টিং –এ সেসব অভিজ্ঞতাই চাওয়া হয় যা নির্ধারিত পদের কাজটি করার জন্য প্রয়োজন। তাই রেজুমে লেখার সময় অবশ্যই জব পোস্টিংটি ভালো ভাবে পড়ে নিতে হবে। বুঝে নিতে হবে যে নির্ধারিত পদটিতে চাকুরি পেতে হলে যে অভিজ্ঞতা দরকার সেটি আপনার আছে কি না। যদি থাকে, তবে অবশ্যই সেসব অভিজ্ঞতাগুলো আপনার রেজুমেতে ফুটিয়ে তুলতে হবে। তাহলে দেখবেন আপনি ইন্টারভিউ দেয়ার জন্য আমন্ত্রণ পাবেন। মানুষ বা সফটওয়ের যে-ই আপনার রেজুমে বাছাই করুক না কেন।

আগেতো ইন্টারভিউ-এর জন্য ডাক পাওয়া, তারপরেতো চাকুরি।


এস এম জাকির হোসেন

টরন্টো, ৯ জুলাই ২০১৯।

2,734 total views, 97 views today

প্রকাশিত লেখা, মন্তব্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর। পোষ্ট লেখক অথবা মন্তব্যকারীর অনুমতি না নিয়ে পোস্টের অথবা মন্তব্যের আংশিক বা পুরোটা কোন মিডিয়ায় পুনঃপ্রকাশ করা যাবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *