আলাহর রহমতে এবং মানুষের চেষ্টায় যদি কালকেও আমরা এই মহামারী থেকে মুক্ত হই তার পরেও অনেক হয়তো ক্ষতি হয়ে গেছে যা ঠিক এই মুহূর্তে আমরা বুঝতে পারছি না। একটু দূরের ইতিহাস দেখলে দেখা যাবে এই ধরণের মহামারী পৃথিবীতে আগেও এসেছে, মানুষ মরেছে এবং পৃথিবী আবারো এগিয়ে গেছে। যেমন ১৭২০, ১৮২০, ১৯২০, বলতে গেলে প্রতি শত বছরে একটি। ইতিহাসের ওই সময়গুলি বিবেচনা করে আগলে হয়তো ক্ষতির পরিমান কম হতে পারে।
কালকে না হলেও, সৃষ্টিকর্তার মহিমায় এবং মানুষের চেষ্টায় এই মহামারীর অবসানও হবে, কিন্তু যে পরিমান ক্ষতি already হয়েছে এবং হবে তা পুষিয়ে উঠতে অনেক মানুষের বা অনেক পরিবারের খুব কষ্টের হবে এমনকি অনেক রাস্টেরও। মানুষ মরছে, মরবে এবং এই যে কেউ চলে গেলো সেটি তো আর ফিরিয়ে আনা যাবে না, বা মানুষ সেই আশা করেও না। কিন্তু আপনার কোনো প্রিয়জন হারানোর ব্যথাটা থাকবে এবং সময়ের সাথে সাথে সাথে আল্লাহ তালা আপনাকে সেটি সহ্য করার ক্ষমতা দিবেন। কিন্তু আনুষাঙ্গিক যে ক্ষতি হবে সেটি সামাল দিতে কোন রাষ্ট্র আপনার জন্য কতটুকু করতে পারবেন সেটি ভাববার বিষয়, কারণ রাষ্ট্রর নিজেরইতো হিমশিম খেতে হবে।

অনেকেই এমন চাকরি করেন, বা এমন ব্যবসা করেন বা খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষ তাদের কাজ, ব্যাবসা বা রুটি-রুজির ব্যবস্থা ইতিমধ্যে সীমিত হয়ে গেছে। আমাদের এই কানাডাতেই, এবং বাইরের অনেক দেশেই আমরা অনেকেই আছি এখনো দেশে পরিবারকে সাপোর্ট দিয়ে থাকি। এই ক্ষেত্রে শুধু যে আমরা এখানে সমস্যায় পড়ছি তা নয়, আমার দেশে থাকা আত্মীয় বা প্রিজনরাও আমার সাথে ভুগবেন। গত পরশু কথা হচ্ছিলো এক ক্লায়েন্টের সাথে, সে একটি ছোট রেস্তোরায় কাজ করছিলো, সেটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে কারণ তারা এফোর্ড করতে পারছিলেন না, এবং মালিক বলেছে যদি এই অবস্থা বেশিদিন চলে তাহলে তাকে Bankruptcy দিতে হবে। এবং ওই ক্লায়েন্ট বলেছে তার বর্তমান বয়োসে, তার existing স্কিলে একটি নতুন কাজ পাওয়া খুবই কঠিন হবে। সে ODSPতে এ আছে এবং কাজও করেন, এই দুই মিলিয়ে তার কোনোমতে চলে যেত, কিন্তু এই কাজ চলে গেলে তার বাড়ি ভাড়া থেকে শুরু করে পরিবারকে চালানো খুবই কঠিন হবে। সরকারের সাহায্য হয়তো সাময়িক, কিন্তু আগামী দিনগুলিতে তিনি কি করবেন। উনি বলেছেন উনি homeless ছিলেন এক সময়, ওই জীবন উনার পছন্দের নয়, উনি বলেছেন উনার সাহস থাকলে আত্ম হত্যা করতেন তবু ওই homeless জীবনে থাকতেন না। গত ২০০৮ এর Recessionএর সময় আমাদের কাছে ফ্যামিলি ডিসপিউট বা ডমেস্টিক প্রব্লেম এর কেস আসা বেড়ে গিয়েছিলো। এতে বোঝা যায় যে উক্ত সমস্যায় অনেক সময় পারিবারিক সম্পর্কেও টান ধরে।

আর এক জন UBER চালকের সাথে কথা হচ্ছিলো। তিনি FT Uber চালিয়ে সংসার চালান। উনার ব্যবসা খুবই খারাপ, উনি already line of credit বেবহার করছেন। উনি শুধু এখানে নিজের সংসারই চালান না, দেশে মা-বাবাকেও প্রতিমাসে সাপোর্ট করতে হয়। আমি নিশ্চিৎ এরকম অনেক অনেক মানুষ আছেন যাদের ক্ষতি অলরেডি হয়ে গেছে। বর্তমান পরিস্থিতি শেষ হলেও খোদ সরকারেরই সময় লাগবে উঠে দাঁড়াতে। সামনে হয়তোবা ফান্ডিং কাট, lay off ইত্যাদি আসন্ন। এই সরকার ৮২ বিলিয়ন , ৫০ বিলিয়ন ইত্যাদি খরচ করার ঘোষণা দিয়েছেন। তারপর আরো কত আছে, এগুলি তো আবার এমনি এমনি তৈরী হবে না, দেশের ইনকাম বাড়তে হবে, মানুষের ট্যাক্স দিতে হবে। এখন মানুষের চাকরি না থাকলে, ব্যাবসা ঠিকমতো না চললে ট্যাক্স আসবে কোথা থেকে। আপনারা হয়তো জানেন, কানাডা কিন্তু পৃথিবীর চতুর্থতম তেল রফতানি কারক দেশ যদিও এর অধিকাংশই যায় আমেরিকায়, সেই তেলের দাম already ২২-২৫ সেন্ট ব্যারেলে নেমে এসেছে। আলবার্টা এর ফল পাচ্ছে আগের থেকেই, সাথে আমরাও আছি।

এগুলি বলা মানে কাউকে ভীত করা বা হতাশ করা নয়। আগেই বলেছি বিগত ২/৩০০ বছরে অন্তত ১ বার মহামারী এসেছে আবার শেষ হয়েছে, এটিও আল্লাহর রহমতে শেষ হবে, তবে সার্বিক ক্ষতিটা কতখানি হবে সেটি নির্ভর করবে আমাদের সরকার এবং প্রতিটি মানুষের সতর্কতা, সাবধানতা এবং বিচক্ষণতার উপর। আসুন আবারো বলছি, রাষ্টের সাথে সাথে আমরা আমাদের নিজেদের যতটুকু করণীয় তাই করি তাহলে ক্ষতির পরিমান হয়তো কম হবে। আর এখন যেহেতু বাধ্যতামূলক সবাই মিলে বাসায় থাকার বেশি সময় আছে তাই আসুন আমরা আমাদের পারিবারিক বন্ধন আরো মজবুত করি, সবাই মিলে একসাথে খাই, একসাথে দোয়া করি, নামাজ পড়ি, গীতা পড়ি, বাইবেল পড়ি, অন্য অনেক বই আছে সেগুলি পড়ি, বাচ্চাদের সাথে মাঝে মাঝে বচ্চা হয়ে খেলা করি। এবং একটু বেশি করে এক্সারসাইজ করি কারণ বাইরে না যাওয়ার কারণে আপনার শরীরে মেদ বাড়বে। যারা রান্না করতে পছন্দ করেন তারা নতুন নতুন রেসিপি চেষ্টা করতে পারেন। আগামী সামারের জন্য বাগান করুন। আর নিজের লোকজন যারা দূরে আছে তাদের সাথে যোগাযোগ করুন।
আপনি অবশ্য বাসার বাইরে সকালে বা বিকালে হাঁটতে যেতে পারেন। নিদৃষ্ট দূরত্ব বজায় রাখলে কোনো অসুবিধা নেই, এবং এখন সেভাবে খুব বেশি মানুষ হাটতে বের হলে দেখাও যায় না, আমি গত কয়েকদিনে তাই দেখেছি। সাথে সাথে আমাদেরকে একটু Economicalও হতে হবে, অপচয় বা impulsive কেনাকাটা থেকে বিরত থাকে হবে। Please save against the rainy day .
আল্লাহর রহমতে সুন্দর সকল আসবেই ইনশাল্লাহ !
সবাই ভালো থাকেন।
মুকুল
টরন্টো

88 total views, 2 views today

আপনার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন